সহজ শেয়ার: কেনা বেচার সহজ নিয়ম

দুবেলা,  যে কোনও সওদায় মুনাফা করার প্রাথমিক শর্তই হল, কম দামে কেনা আর বেশি দামে বেচা। একথা কারোর অজানা নয়। কিন্তু ব্যবহারিক ক্ষেত্রে এই নিয়মের প্রয়োগ হয়তো ততটা সহজ নয়। এই কারণেই কি সবার দ্বারা ব্যবসা হয় না? সে না হোক,  শেয়ারের ক্ষেত্রে এই ধারণার প্রয়োগের একটি বেশ পরিচিত নিয়ম রয়েছে। এখানে গড় দামের উত্থান পতনের সুযোগে মুনাফা নেওয়া সম্ভব। অর্থাৎ কোনও শেয়ারের দাম যখন ওপরের দিকে গতি পেল, তখনই কিনে নিলাম, আর দাম যখন নিচের দিকে পা বাড়াবে তখন বিক্রি। শুনতে বেশ মজার। কিন্তু কী ভাবে সম্ভব? প্রথমে ওয়েবসাইটে পছন্দের শেয়ারের দামের চার্ট খুলুন। তারপর মুভিং অ্যাভরেজ অন করুন। আপনার পছন্দের ধরন অনুযায়ী সওদার উপায় বেছে নিন। চলুন দেখে নিই কী কী ভাবে মুভিং অ্যাভরেজের মাধ্যমে কেনা বেচা করা সম্ভব।

১. ৭ দিন থেকে শুরু করে ২০০ দিন,  যে কোনও একটি মুভিং অ্যাভরেজ বাছাই করুন। আগের দিন দাম মুভিং আভরেজের ওপরে বন্ধ হলে কিনবেন । দাম মুভিং অ্যাভরেজের নিচে এলে বিক্রি। যারা যত কম সময়ের সওদা নিতে চান,  তারা কম দিনের মুভিং অ্যাভরেজ সিলেক্ট করুন।(ছবিতে দেখুন  ডাবর ইন্ডিয়ার দামের চার্ট। 13 দিনের মুভি অ্যাভরেজ ধরলে 27 মার্চ কেনা দাম 322 আর 24 মে বিক্রির দাম 370। ) তবে যারা ভাল বিয়োগকারী,  অর্থাত যাদেরকে বলা হয় লঙ টার্ম ইনভেস্ট তারা ২০০ কিংবা ১০০দিনের মুভিং অ্যাভরেজকে মান্যতা দেন।

২. দুটি আলাদা সময়সীমার মুভিং অ্যাভরেজ ব্যবহার করতে পারেন। একটি কম সময়ের দামেক গড়, আরেকটি অপেক্ষাকৃত বেশি সময়ের গড়। (ছবিতে দেখুন ৭ এবং ১৩ দিনের দামের গড়। চলতি বছরের 28 মার্চ 327 টাকা কেনা দাম। মিয়ম অনুযায়ী বিক্রি করা হয়েছে 17 মে 385 টাকা দামে।) কম সময়ের মুভিং অ্যাভরেজের রেখা বেশি দিনের রেখাকে নিচে থেকে ওপরে অতিক্রম করলে কিনতে হবে। বিক্রির নিয়ম ঠিক উল্টো।

৩. ধরুন কিনতে না কিনতেই দাম ইউ টার্ন নিল। কী করবেন? অবশ্যই নিয়ম মেনে সওদা থেকে বেরিয়ে আসুন। সাময়িক ক্ষতি মেনে নিতে হবে।মনে রাখবেন,  দামের গতিপথ নির্দিষ্ট অভিমুখে না চললে সওদায় মুনাফা নেওয়া মুশকিল। সঙ্কট এড়াতে কেনার সময় খেয়াল রাখবেন কম সময়ের মুভিং অ্যাভরেজ রেখার মুখ ওপরের দিকে রয়েছে কিনা। আর দাম কম সময়ের মুভিং অ্যাভরেজের নিচে এলেই বিক্রি।

মনে রাখবেন,  খুব কম সময়ের মুভিং অ্যাভরেজে কাজ করতে চাইলে সওদা নেওয়ার ক্ষেত্রে বিভ্রান্তি হতে পারে। তাহলে এবার থেকে রোজ নিয়ম করে পছন্দের শেয়ারের মুভিং অ্যাভরেজে নজর রাখুন।

ছবি সৌজন্য-ইনভেস্টিং ডট কম

সতর্কীকরণ – বাজার ও শেয়ার সংক্রান্ত ধারণা প্রতিবেদকের নিজস্ব৷ শেয়ার বাজারে আপনার কোনও ধরনের বিনিয়েগ বা সওদা নিয়ে প্রতিবেদক বা দুবেলা কর্তৃপক্ষ কোনভাবেই দায়ী থাকবে না৷  নিজের বুদ্ধি, বিবেচনা, অভীজ্ঞতা অথবা আপনার অর্থনৈতিক উপদেষ্টার পরামর্শ অনুযায়ী বিনিয়োগ করুন৷

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Related posts

Leave a Comment