দুর্নীতি মামলায় মুকুল রায়কে স্বস্তি দিল হাইকোর্ট!

দুবেলা,সম্পূর্ণা সাহাঃ দূর্ণীতি মামলায় অভিযুক্ত মুকুল রায়, ব্যাঙ্কশাল কোর্টের জামিন অযোগ্য ধারার নোটিশকে চ্যালেঞ্জ করে গিয়েছিলেন দিল্লি হাইকোর্টে এবং তার রায় -এ পেলেন ১০ দিনের “রক্ষাকবচ” ।

দিল্লি হাইকোর্টের রায় অনুযায়ী আপাতত ১০ দিন মুকুল রায়ের বিরুদ্ধে কোনও রকম কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করা যাবে না এবং তাকে তদন্তে সহযোগিতা করার নির্দেশ দিলেন। এবং আরও জানালেন মুকুল রায় এই সময়ের মধ্যে আগাম জামিনের জন্য কলকাতার নিম্ন আদালতে যেতে পারেন।

গতবছর বড়বাজার এলাকা থেকে দুর্নীতির একটি মামলায় গ্রেপ্তার করা হয় একজনকে । পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে আরও তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয় । পুলিশ সূত্রে খবর, চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে উঠে আসে মুকুল রায়ের নাম। ২৭ জুলাই জিজ্ঞাসাবাদ করতে চেয়ে মুকুলকে নোটিশ পাঠায় কলকাতা পুলিশ ৷ ২৯ জুলাই ব্যাঙ্কশাল কোর্টে সরকারি আইনজীবী জানান, বিষয়টি নিয়ে মুকুলকে বারবার ডেকে পাঠিয়েছিল কলকাতা পুলিশ । মুকুল সেই ডাকে সাড়া দেননি । আদালতের তরফেও তাকে সমন পাঠানো হয়েছিল । কিন্তু, তা সত্ত্বেও হাজিরা দেননি মুকুল ৷ এরপর BJP নেতার বিরুদ্ধে জামিনযোগ্য ধারায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে ব্যাঙ্কশাল কোর্ট ।

আবার, কলকাতা পুলিশের নোটিশকে চ্যালেঞ্জ করে দিল্লি হাইকোর্টে আবেদন করেছিলেন মুকুল ৷ বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ১ অগাস্ট তার শুনানি হয় ৷ মুকুলের আইনজীবী অরবিন্দ নিগম ও সমীর কুমার বলেন, বিজেপি নেতা দিল্লিতে বসবাস করছেন৷ অথচ পশ্চিমবঙ্গের একটি ঠিকানায় মুকুলকে নোটিশ পাঠানো হয়েছে ৷ এর বিরোধিতা করেন কলকাতা পুলিশের আইনজীবী সিদ্ধার্থ লুথরা ৷ এরপর বিচারপতি এ কে চাওলা মুকুলকে ১০দিনের সময় দেন ৷ পাশাপাশি, গতকাল অর্থাৎ ২ তারিখ মুকুলকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তৈরি থাকার নির্দেশ দেন বিচারপতি ৷

কিন্তু গ্রেপ্তারি পরোয়ানার উপর ১০ দিনের রক্ষাকবচ পেয়ে যাওয়ার পর মুকুল রায় জানান “মামলার শুনানি তো হয়ে গেছে আবার জিজ্ঞাসাবাদের কি দরকার?”

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Related posts

Leave a Comment