হিন্দু নাবালিকার অপহরণ নিয়ে পাকিস্তানকে কটাক্ষ সুষমার!

দুবেলা, সানি ভগতঃ আগের ঘটনার রেশ এখনও মেলায়নি, ইতিমধ্যে আবার অপহরণের ঘটনা ঘটল পাকিস্তানের সেই সিন্ধ প্রদেশেই। এবারেও শিকার হিন্দু নাবালিকা কন্যা। ১৬ বছরের মেয়েটি মেঘওয়ার গোষ্ঠীর।গত ২০ মার্চ সিন্ধ প্রদেশের দুই হিন্দু নাবালিকা কন্যার অপহরণ ও ধর্মান্তকরণের ঘটনা নিয়ে যখন নাকি তৎপর প্রশাসন, তখনই আরও একটি অপহরণের ঘটনা চিন্তায় ফেলেছে পাক প্রশাসনকে।

এই বিষয়ে পাকিস্তানকে খোঁচা দিয়ে টুইট করলেন ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ। ‘পাকিস্তানে জোর করে দুই হিন্দু নাবালিকাকে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে। অপহৃতদের বয়স নিয়ে কোনও সংশয় নেই। রবিনার বয়স মাত্র ১৩ আর রিনার ১৫ বছর। অবিলম্বে তাদের বাড়ি ফেরানোই হবে ন্যায় বিচার’- টুইটে জানিয়েছেন সুষমা স্বরাজ।

এখানেই শেষ নয়, গত রবিবার বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো টুইট যুদ্ধে জড়িয়ে পরেন সুষমা স্বরাজ ও পাক তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী। ‘পাকিস্তানের আভ্যন্তরীণ বিষয়ে অবাঞ্চিত হস্তক্ষেপ করছে নয়াদিল্লি’ অভিযোগ ফাওয়াদের।

ইতিমধ্যেই এই ঘটনা গুলিকে কেন্দ্র করে সরব হয়েছে পাকিস্তানের মানবাধিকার কমিশন এবং বিভিন্ন সংখ্যালঘু সংগঠনেরা। মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত দুই নাবালিকাকে সরকারি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন ইসলামাবাদ হাইকোর্টের বিচারপতি আথার মিনাল্লা।

সম্প্রতি একটি পাক সংবাদ মাধ্যমের দাবি পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশের উমেরকোট জেলায়, যেখানে পাকিস্তানের সবথেকে বেশি হিন্দুর বসবাস, প্রতি মাসে গড়ে ২৫ জন হিন্দু মহিলাদের তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্মান্তর ও বিয়ের ঘটনা ঘটে।

সন্ত্রাসবাদতো দুরের কথা, নিজের দেশে সংখ্যালঘুদের সুরক্ষা দিতেই অক্ষম পাকিস্তান, কটাক্ষ বিশ্বের।

Spread the love
  • 13
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    13
    Shares

Related posts

Leave a Comment