৬ বছর! হঠাৎ এখন ভালমানুষি কেন?

 

সেলিব্রিটি বলে কথা৷ তাদের কাছে আমার আপনার মতো যদু, মধুরও অনেক প্রত্যাশা থাকে৷ প্রকাশ্যে অন্তত তাদের অনেক কিছুই এড়িয়ে চলতে হয়৷ হাজার হোক সেলিব্রিটি৷ আমাদের রোল মডেল৷ অনেকক্ষণ প্লেন জার্নির পর বিমান বন্দরে নেমেই ধুমপান করা যায় না৷ হাজার তেষ্টা পেলেও যেখানে সেখানে অ্যালকোহলে চুমুক দেওয়া যায় না৷ কদিন আগেও কিছু লোক সেলিব্রিটিদের যেমন তেমন বিজ্ঞাপণ দেওয়া যাবে না বলে আওয়াজ তুলে পথে নেমেছিলেন৷ হাজার ঝক্কি৷ নৈতিকতা, আইন কত কিছুর চোখরাঙানি৷ ভাবুন তো, কেষ্ট বিষ্টু কেউ একজন কৃষ্ণসার হরিণ শিকার করলে এদ্দিন ধরে মামলা চলত? আবার মামলা জিততে অনেক ধড়িবাজিও করতে হচ্ছে বলে অভিযোগ তেলেন কোনও কোনও খবরের কাগজওয়ালারা৷ ধড়িবাজিতেও নৈতিকতার মার গুলি৷ তাতেও আবার সেলিব্রিটিদের জবাব নেই৷ না করলে হয় বুঝি! কে আবার প্যারোলে মুক্তি দেবে শুনি? তারপর কতগুলো ছবি হাতছাড়া! ভাবুন একবার, কত লোচা৷ তাই তো ভালমানুষির পথ খুঁজতে হয়৷ একেই কি বলে ধড়িবাজি? হঠাৎ এতটা ভালমানুষ হয়ে গেলেন আরবাজ! আরে বাবা অভিনেতা প্রযোজক আরবাজ খানের কথা বলছি৷ ছয়-ছটি বছর নাকি কোনও হুঁশ ছিল না৷ কেলো হল পুলিশি তলবে৷ বুকি স্বয়ং সামনে বসে, আর রয়েছেন তদন্তকারীরা৷ ভাবুন একবার দৃশ্যটা৷ এরকম একটা জায়গা থেকে বেরনোর পর তিনি এক্কেবারে ভালমানুষটি সেজে সাংবাদিকদের সামনে সমস্ত রকম সহযোগিতা করার কথা দিচ্ছেন কেন বুঝতে পারছেন? কিস্তিমাত বলেই কি সেন্টিমেন্টের প্রত্যাশা? অথচ এ জাতীয় মানুষদের কাছ থেকে আমরা একটু নৈতিকতা আশা করেছিলাম৷ কতগুলো প্রশ্ন থেকে গেল৷ আরবাজ খানের মতো প্রযোজক কীসে যেন টাকা লাগান? আচ্ছা, বছর বছর ক্রিকেটের মোচ্ছবের নামে জুয়া হয় না তো? শেষ প্রশ্নটা একটু অন্যরকম৷ সাহস আর সুযোগ পেলে কি যে কেউ আরবাজের মতো ধড়িবাজ হয়ে যেতে পারবেন? ভাবুন৷

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Related posts

Leave a Comment