চলতি IPL প্রথম হার ধোনিদের!

দুবেলা, সানি ভগতঃ অবশেষে হারের তালিকায় নাম তুলল চেন্নাই। চলতি বছরের আই পি এলে ঘরের মাঠে ধোনিকে টেক্কা দিল রোহিত শর্মার দল। ৩৭ রানে হারতে হল চেন্নাইকে। তবে এর কৃতিত্ব কিন্তু হার্দিক পান্ডিয়ারই। দুটি উইকেট নিয়ে পরপর আউট করেন মহেন্দ্র সিং ধোনি ও রবীন্দ্র জাডেজাকে। পরপর তিনটে ম্যাচ জেতার পর চার বারে ধাক্কা খেল ধোনিরা।

মুম্বাইয়ের ইনিংসের শেষ তিন ওভারই গড়ে দিল ম্যাচের ভাগ্য। ১৭ ওভারের শেষ পর্যন্ত ভীষণ দুর্বল মনে হচ্ছিল মুম্বাইকে। পরাজয় নিশ্চিত বলে মনে হচ্ছিল একটা সময়। কিন্তু শেষের তিন ওভারে ৫১রান পুরো পাল্টে দিল ম্যাচের চেহারা। ২০ ওভারে ১৭০ রান করে লড়াইয়ের জায়গায় করে নেয় মুম্বাই।

পান্ডিয়ার সঙ্গে ১৭০ রানের কৃতিত্ব পোলার্ডেরও। ৭ বলে ১৭ রান করে উঠলেন পোলার্ড। তিনটে ছয় ও একটা চার মেরে নট আউট থাকলেন পান্ডিয়া। ডেথ ওভারের সেরা বলার ব্রাভোরর ওভারেরই ২৯ রান এল মুম্বাইয়ের খাতায়।

তবে এই ম্যাচে প্রশ্ন উঠেছে যুবরাজের পারফরম্যান্স নিয়ে। নেমেই তাড়াহুড়ো করে খেলে ছয় বলে ৪ রান করে ইমরান তাহিরের বলে আম্বাতি রায়াডুকে ক্যাচ দিয়ে আউট হন যুবরাজ সিং। সিনিয়র প্লেয়ারের এইরূপ শট, আশা করেননি মুম্বাই ফ্যানস-রা।

অন্যদিকে শুরুতেই উইকেট হারাল চেন্নাই। ওপেনার আম্বাতি রায়াডু (০) ও শেন ওয়াটসন (৫) শুরুতেই ফিরে যান। ২১ বলে ১২ রান করে হার্দিকের বলে আউট হন ধোনি, সেই ওভারেই ১ রানে জাডেজাকে তুলে নিল পান্ডিয়া।

তবে চেন্নাইয়ের সূর্যকুমার যাদবের ব্যাটিং সত্যি প্রশংসনীয় এই চাপের মুখে ৪৩ বলে ৫৯ রান অবশ্যই প্রশংসার দাবি রাখে। টস জিতে মুম্বাইকে ব্যাট করতে পাঠিয়েছিল ধোনি, রান তাড়া করেই জিততে ভালোবাসেন তিনি। তাই এই চ্যালেঞ্জটা নিয়েছিল অধিনায়ক। কিন্তু ব্যাট হাতে সব ম্যাচই ধোনি জিতবে তা তো সম্ভব নয়। এটা চেন্নাই যত তাড়াতাড়ি বুঝবে ততই তাদের মঙ্গল।

রোহিতের নেতৃত্ব মুগ্ধ করেছে দর্শকদের ঠিক সময়ে বোলারদের বদলে ম্যাচের রং পাল্টে দিয়েছেন তিনি। উইকেটে থিতু হতে দেয়নি ধোনিকেও। নিজের ফর্মে ফিরছে মুম্বাই।

Spread the love
  • 17
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    17
    Shares

Related posts

Leave a Comment