বিরাট পারবে বেঙ্গালুরুর ভাগ্য পরিবর্তন করতে?

দুবেলা, সানি ভগতঃ আইপিএল এর দল গুলির মধ্যে বেঙ্গালুরু এক অন্যতম বহুচর্চিত দল। দলে তারকার অভাব নেই কিন্তু কেন একবারও আইপিএল খেতাব ঘরে তুলতে পারল না এই দল? প্রশ্ন ক্রিকেট মহলের। ক্রিকেট বিশেষজ্ঞদের মতে, একই দলের তারকা সংখ্যা বেশী হলে কাজের কাজে কিছুই হয় না। টিমের মধ্যে নতুন এবং অভিজ্ঞতার একটা ভারসাম্য থাকা দরকার।

বেঙ্গালুরুর দলকে দেখেই তা ক্ষানিকটা আন্দাজ করা যায়। কিন্তু বিরাট কোহলি এবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য বদ্ধপরিকর। এবার দলে ভারসাম্য রয়েছে, দাবি অধিনায়কের। তাই তাদের কাছে এবারই সূবর্ণ সুযোগ। বেঙ্গালুরুর সাথে অনেক স্মৃতি বিরাটের, তাই আইপিএলের প্রথমদিন থেকেই দলের জার্সি পরেই মাঠে নামছেন অধিনায়ক বিরাট। বিরাটকে স্মরণীয় একটি ম্যাচ বেছে নিতে বলা হয়। কাজটা বেশ কঠিন ছিল তার পক্ষে। হবেই না বা কেন? সেই ২০১৩ সাল থেকে বেঙ্গালুরুর অধিনায়ক বিরাট। সাক্ষি বহু ম্যাচের।

তবে তার স্মৃতির পাতা থেকে এমন একটি ম্যাচ তাজা হয়ে উঠল যেটা তিনি ক্যাপ্টেন হিসেবে খেলেননি বরং খেলেছিলেন ব্যাটসম্যান হিসেবে। ২০১০ সালের চ্যাম্পিইয়ন্স লিগ টি-২০ তে মুম্বাইয়ের বিরুদ্ধে একটি ম্যাচ, লড়াকু ইনিংস বলতে যা বোঝায়, সেই ইনিংস ছিল বিরাটের জন্য ঠিক সেই রকম। যদিও ম্যাচটা তারা হেরে যায়, তবুও এটা একটা স্মরণীয় ম্যাচ তার স্মৃতিতে। এই ইনিংসে ৪৯ রান করেন বিরাট। “শেষ বল পর্যন্ত লড়াই চালিয়েছিলাম। দলের সবাই ম্যাচটা জেতার আশা ছেড়ে দিয়েছিল।

কিন্তু আমি লড়াই করছিলাম। ওই ইনিংসটা আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিয়েছিল। ওরকম একটা ইনিংস খেলার পর সবাই আমার প্রশংসা করছিল”, স্মৃতি চারণায় বললেন বিরাট। তিনি আরও বলছিলেন, ”মুম্বই দল সচিন পাজি, ভাজ্জি, জাহির খানের মতো তারকারা ছিলেন। শেষ ওভারটা করছিল জাহির খান। আমি শেষ বল পর্যন্ত লড়াই করেছিলাম। সেদিন সবাই বুঝেছিল, আমি লড়াই করতে পারি। আমার ব্যাটিং সেদিন অনেকের নজর কেড়েছিল। সেটা আমার কাছে বড় ব্যাপার ছিল।” ২৩ মার্চ শুরু হবে আইপিএল ২০১৯। প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হতে চলেছে বিরাটের বেঙ্গালুরু এবং ধোনির চেন্নাই। সুতরাং দেখার বিষয়, কি অধিনায়ক বিরাট পারবে প্রথম ম্যাচে বেঙ্গালুরুর ভাগ্য পরিবর্তন করতে?

Spread the love
  • 9
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    9
    Shares

Related posts

Leave a Comment