খাওয়া-দাওয়াঃ আজকের রেসিপি দোল স্পেশাল ঠান্ডাই!

মৌসুমী রায় সরকার, গৃহবধূ, সোনারপুর

দুবেলা খাওয়াদাওয়া, মৌসুমী রায় সরকারঃ আজজের হোলির জন্য স্পেশাল এই রেসিপি। আজকের রেসিপি হল ঠান্ডাই।
আজকের এই রেসিপি করতে কি কি উপকরণ লাগবে এবং কিভাবে করতে হবে তা জেনে নেওয়া যাক।

উপকরণ : দুধ 1 লিটার, আমন্ড 15/16 টা(2 ঘন্টা ধরে আগে থেকে জলে ভিজিয়ে রাখতে হবে) কাজু বাদাম 15/20 টা(2 ঘন্টা ধরে আগে থেকে ভিজিয়ে রাখতে হবে )পেস্তা 2 টেবিল চামচ(2 ঘন্টা আগে থেকে ভিজিয়ে রাখতে হবে )পোস্ত 2 টেবিল চামচ,(আগে থেকে ভিজিয়ে রাখতে হবে ), চালমগজ 2 টেবিল চামচ (আগে থেকে ভিজিয়ে রাখতে হবে ),3 টেবিল চামচ মৌরি, 5/6 এলাচ, দার চিনি 1 টুকরো, 10/12 টা গোল মরিচ, কেশর 1/2 চা চামচ, চিনি 1 কাপ, গোলাপ জল সামান্য।

প্রণালী : প্রথমে একটা পাত্রে চাল মগজ, মৌরি, ভেজানো পোস্ত, কাজু,আমন্ড, পেস্তা, দার চিনি, এলাচ, গোল মরিচ, সব ঢেলে দিয়ে তাতে হালকা গরম জল এক কাপ মত দিয়ে এক ঘন্টা ভিজিয়ে রেখে দিতে হবে। এক ঘন্টা ভিজিয়ে রাখার পর মিক্সিতে একটা ঘন পেস্ট তৈরী করতে হবে। তারপর কড়াইতে দুধ গরম করে তাতে চিনি দিতে হবে। তারপর খানিকক্ষণ ফোটানোর পর 2 চিমটি কেশর দিতে হবে। তারপর আবার 5 মিনিট মত ফোটাতে হবে। এরপর আঁচটা একদম কমিয়ে ঐ পেস্ট টা দিয়ে দিতে হবে ঐ ফুটন্ত দুধের মধ্যে। ঠান্ডাইএর ঘনত্ব অনুযায়ী পেস্ট দিতে হবে। অর্থাৎ একটু বেশি ঘন চাইলে বেশি পেস্ট। আর হালকা ঘন চাইলে অল্প পেস্ট দিতে হবে। এক্ষেত্রে 5 টেবিল চামচ মত পেস্ট যোগ করা হয়েছে। আর আঁচ একদম কম করে রাখতে হবে এই সময়. এই কম আঁচে ভালো ভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। আর মিশ্রণ সহ দুধ টা ভালো করে ফুটিয়ে নিতে হবে. তারপর ফোটানো হয়ে গেলে শেষে গোলাপ জল দিতে হবে সামান্য পরিমানে। তারপর আবার একটু ফুটিয়ে নিতে হবে। তারপর গ্যাস অফ করে ঠান্ডা করে নিতে হবে। তারপর একটা কাঁচের পাত্রে ছাঁকনি দিয়ে ছেঁকে ঢেলে নিতে হবে ঠান্ডাই টা। যাতে মুখে দানা দানা কিছু না পড়ে। তারপর ছেঁকে রাখা কাঁচের পাত্রের ঠান্ডাই টা ফ্রীজে রেখে দিতে হবে 2/3 ঘন্টা। তারপর 2/3 ঘন্টা পর ফ্রীজ থেকে বের করে কাঁচের গ্লাসে ঠান্ডা ঠান্ডা পরিবেশন করতে হবে ঠান্ডাই। ওপর দিয়ে পেস্তা কুচি আর আমন্ড কুচি আর কেশর আর বরফ কুচি ছড়িয়ে সার্ভ করতে হবে।

Spread the love
  • 10
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    10
    Shares

Related posts

Leave a Comment