“সাহো” ছবির বক্স অফিস কালেকশন কত হল জানেন?

দুবেলা,সম্পূর্ণা সাহাঃ জমজমাট অ্যাকশনে ভরপুর “সাহো” ছবিটি প্রথমে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ১৫ অগাষ্ট কিন্তু বক্স অফিসে ক্ল্যস করে যাওয়ার সম্ভাবনার জন্য “সাহো” ছবিটি মুক্তি পেয়েছে ৩০ অগাস্ট অর্থাৎ শুক্রবার। কিন্তু তাতেও কি কোনও সুরাহা হল? ৩৫০ কোটি টাকা বাজেটের ছবিটি প্রথম এবং দ্বিতীয় দিন মিলিয়ে ছবিটি রোজগার করেছে মোট ৪৯ কোটি টাকা। মোট চারটি ভাষায় মুক্তি পেয়েছে এই ছবিটি।

ছবির মূল গল্পটি হল দুনিয়ার সবচেয়ে বড় ক্রাইম এজেন্সির খালি সিংহাসনে বসবে কে? তাই নিয়ে চলছে ষড়যন্ত্র ও রেষারেষি। অন্য দিকে, মুম্বইয়ে ঘটে যাওয়া কোটি টাকার চুরির তদন্ত করতে নামে মুম্বই পুলিশ। চোর-পুলিশ খেলা শুরু হতে না হতেই আরম্ভ হয়ে যায় পিঠে ছুরি মারার খেলাও। একটি ব্ল্যাক বক্সের খোঁজে নেমে পড়ে হিরো-ভিলেন সকলে, যা দিয়ে কোন রাজকোষের সন্ধান পাওয়া যাবে, তা হয়ত ভগবানই জানেন! শ্রদ্ধা এখানে পুলিশ অফিসার। শুরু থেকেই ডিপার্টমেন্টে মজার পাত্রী হতে হয় তাকে, শুধুমাত্র ‘মেয়ে’ বলে। তাই কাজের মাধ্যমে নিজেকে প্রমাণ করতে হয়। যদিও শেষে গিয়ে দেখা গেল, তার রক্ষাকর্তাও সেই নায়কই! সাহোর প্রেমে পড়াটাই যেন মূল উদ্দেশ্য হয়ে দাঁড়াল তার কাছে। আপাত দৃষ্টিতে স্ক্রিপ্টে নারীর সমানাধিকার প্রতিষ্ঠার চেষ্টা রয়েছে। অথচ সারা ছবিতে নারী চরিত্র মাত্র তিনটি! কাজেই ‘আন্ডারকভার’ থাকায় শ্রদ্ধার চরিত্রটি পুলিশ অফিসারের খোলস ছেড়ে হঠাৎ ডিস্কোয় নাচতে শুরু করবে। যে উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধার চরিত্রটির আমদানি, তাতে জল ঢেলে দেয় নায়িকার লাস্যময়ী অবতারে প্রভাস ও তার শাগরেদদের অভিব্যক্তি!

দর্শককে গোড়া থেকেই ধাঁধিয়ে দেওয়া হয়, আসল-নকল চেনার ফিকিরে। চেনা টুইস্ট হলেও তা এত অতি-ব্যবহৃত, তাতে চমকটাই নষ্ট হয়ে গিয়েছে। গৌরচন্দ্রিকা শেষ করতে করতে না করতেই চলে আসে ইন্টারভ্যাল। বিরতির ঠিক আগের মোচড়টুকু ছাড়া পুরো প্রথমার্ধ অহেতুক দীর্ঘ ও একঘেয়ে করা হয়েছে। প্রভাসের নায়কোচিত এন্ট্রি এবং একা হাতে একশো ভিলেন নিকেশ করা ছিল বটে কিন্তু তার পড়েও কোনও হাততালি পড়ে নি। প্রভাসের সেই ‘এক্স ফ্যাক্টর’ কাজ করল না এ বার। নিন্দার মুখে পড়ল তার হিন্দি উচ্চারণও। শ্রদ্ধা কপূরের সঙ্গে তার কেমিস্ট্রিও তেমন একটা জমে নি। গোটা ছবিতে একবারও তাদের দু’জনকে জুটি হিসেবে খুঁজে পাওয়া যায় নি সে ভাবে। পারিপার্শ্বিক চরিত্র গুলির অভিনয়ও সেরকম উল্লেখযোগ্য নয়।

ট্রেলারে দম থাকলেও ছবির স্ক্রিপ্টে সেরকম একটা দম ছিল না। পরিচালক সুজিতের আগেই ভাবা উচিত ছিল দর্শক এখন আর লম্ফ জম্ফ ওলা ছবি খুব একটা খায় না।

নাম- “সাহো’
পরিচালনা: সুজিত
অভিনয়: প্রভাস, শ্রদ্ধা,নীল, চাঙ্কি, জ্যাকি
★★

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Related posts

Leave a Comment